স্তন ব্যথার হোমিও চিকিৎসা

দুধ দানকারী মাদের স্তন বা ব্রেস্টের ব্যথার (Breast Pain) হোমিও ওষুধ

দুধ দানকারী মায়েদের (Breastfeeding Mom) স্তন ব্যথা বা প্রদাহের (Breast Pain) শ্রেষ্ঠ হোমিওপ্যাথিক ঔষধ ও তাদের প্রয়োগ নির্দেশনার তথ্যসমূহ নিয়ে আমাদের আজকের লেখাটি সাজানো হয়েছে।

স্তন প্রদাহের প্রধান হোমিওপ্যাথিক ওষুধ

দুধ দানকারী মায়েদের স্তন ব্যথা বা প্রদাহের (Breast Pain) একটি শ্রেষ্ঠ হোমিওপ্যাথিক ঔষধ হচ্ছে ফাইটোলাক্কা। এই ঔষধের লক্ষণে দেখা যায়, স্তন অত্যন্ত শক্ত, স্ফীত, গরম ও বেদনান্বিত হয়।

যখন সন্তান দুধ পান করে তখন বেদনা সর্বাঙ্গে ছড়িয়ে পড়ে। সঙ্গে জ্বর থাকে। মাথায়, পিঠে অত্যন্ত বেদনা থাকে এবং রোগীর অবস্থা খারাপ হয়। এটা দ্রুত নিবারিত না হলে প্রায়শই পেঁকে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

সাধারণতঃ যখন শিশু স্তন্য পান করে তখনই ব্যথা সারা দেহে ছড়িয়ে পড়ে।

এই রোগে ব্রায়োনিয়াফাইটোলাক্কা পরস্পরের অনুপূরক। অধিকাংশ ক্ষেত্রেই এই দুটির একটিকে লক্ষণ অনুসারে বেছে নিতে হয়।

দুগ্ধদানকারী মাতার স্তন প্রদাহের অন্যতম শ্রেষ্ঠ হোমিওপ্যাথিক ঔষধ

ব্রায়োনিয়ার লক্ষণযুক্ত স্তনের ব্যথায় স্তনদ্বয় বিবর্ণ, উত্তপ্ত, শক্ত, ভারী ও বেদনাযুক্ত থাকে। সামান্য নড়াচড়ায় ব্যথার বৃদ্ধি ঘটে ও ধীর-স্থির হয়ে বিশ্রাম নিলে রোগিনী কিছুটা স্বস্তি অনুভব করে। স্তনের মধ্যে ঠিক যেন সূচীবিদ্ধকর বেদনা অনুভব হচ্ছে এমনটা মনে হয়। স্তনের ব্যথায় জ্বর আসলেও তার প্রচুর পিপাসা থাকে। প্রচন্ড কোষ্ঠবদ্ধতা থাকলে ব্রায়োনিয়া আরও নিশ্চিতভাবে ব্যবহার করা যায়।

স্তনস্ফতির প্রায় সর্বক্ষেত্রেই যখন দুগ্ধ জ্বরে স্তন স্ফীত হয়ে উঠে এবং প্রসবের পর প্রথমবার স্তনে ব্যথা দেখা দেয় তখন এই দুটির একটি না একটি দ্বারা অবশ্যই উপকার পাওয়া যাবে। যদি পুঁজ জন্মায় ও ঐ সঙ্গে বৃহৎ নালী বিশিষ্ট হাঁ করা লাল ব্যথাযুক্ত ও প্রদাহিত ক্ষত থাকে এবং তা থেকে জলের মত দুর্গন্ধ স্রাব বের হয় তাহলে ফাইলোলাক্কা উপযোগী হবে।

তবে এক্ষেত্রে, এই রোগে আরও কতগুলো ঔষধের সঙ্গে ফাইটলাক্কাকে তুলনা করে ব্যবহার করতে হয়। যথা-

স্তন্যদানকালে স্তন প্রদাহের অন্যান্য কার্যকরী হোমিও ঔষধ

শিশুকে স্তন্যদান করার সময় বেদনা পিঠের মধ্য দিয়ে ধাবিত হলে ক্রোটন টিগ উপযোগী হবে।

স্তন্যদানের অন্তর্বর্তী সময়ে অর্থাৎ দুবার স্তন্যপানের মধ্যবর্তীকালে দুগ্ধবাহি নালীর মধ্য দিয়ে বেদনার বিস্তৃতি হলে ফেলেণ্ড্রিয়াম কার্যকর হবে।

স্তনের অত্যাধিক পূর্ণতা ও তা এত বেদনাযুক্ত, স্পর্শকাতর বা স্পর্শাদ্বেষযুক্ত হয় যে স্তনের ভারে রোগিনীর কষ্ট হয়। সে স্তন হাত দিয়ে তুলে রাখতে চায় এবং যৎসামান্য ঝাঁকুনিও তাকে ব্যথা দেয়। এমন পরিস্থিতিতে ল্যাক ক্যানাইনাম তার স্তনের ব্যথা দূর করবে। স্তনের ভারবোধ ভাব দূর করে তাকে শান্তি প্রদান করবে।

তবে এই রোগে একোনাইট, এপিস ও বেলাডোনা‘র কথাও ভুললে চলবে না। এদেরও পূর্বোক্ত ঔষধের ন্যায় সুনির্দিষ্ট প্রয়োগ লক্ষণ আছে।

চিকিৎসার্থে যোগাযোগ করুন

ডাঃ জান্নাত আরা জেবা

ইমেইলঃ jannatarazeba@gmail.com

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *